পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণীতে কোথায় কি তথ্য দিবেন?

//পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণীতে কোথায় কি তথ্য দিবেন?

পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণীতে কোথায় কি তথ্য দিবেন?

২০১৭-১৮ অর্থ বছর কেবল শেষ হয়েছে। আয়কর বিবরণী জমা দেওয়া শুরু হয়ে যাবে। এই বছর আয়কর বিবরণী জমা দেওয়ার তালিকা কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে। যাদের জন্য আয়কর বিবরণী জমা দেওয়া বাধ্যতামূলক তাদেরকে মূল আয়কর বিবরণীর সাথে কয়েকটা আলাদা আলাদা বিবরণী জমা দিতে হয়।

যেমন পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী। এই বিবরণী আবার সবার জন্য বাধ্যতামূলক নয়। অর্থাৎ আপনার জন্য আয়কর বিবরণী জমা দেওয়া বাধ্যতামূলক হলেও পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী জমা দেওয়া বাধ্যতামূলক নয়।

তাহলে কাদের জন্য এই বিবরণী জমা দেওয়া বাধ্যতামূলক? কেবল নিচের তিনটি শর্তের যে কোন একটি পূরণ হলেই তাকে পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণী জমা দিতে হবে।

১। আয় বছরের শেষ তারিখে মোট পরিসম্পদের পরিমান ২৫ লাখ টাকার অধিক হলে; অথবা

২। আয় বছরের শেষ তারিখে মোটর গাড়ি (জিপ বা মাইক্রোবাসসহ) এর মালিকানা থাকলে; অথবা

৩। আয় বছরে কোন সিটি কর্পোরেশন এলাকায় কোন গৃহ-সম্পত্তি বা অ্যাপার্টমেন্টের মালিক হলে অথবা গৃহ-সম্পত্তি বা অ্যাপার্টমেন্টে বিনিয়োগ করলে।

উপরের তিনটি শর্তের যে কোন একটি শর্ত পূরণ না হলেও আপনি চাইলে স্বপ্রণোদিতভাবে এই বিবরণী দাখিল করতে পারেন।

তাহলে জেনে গেলাম কাদের জন্য এই আয়কর বিবরণী সংযুক্ত করতে হবে। এখন এই বিবরণী পূরণ করতেগিয়ে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের প্রশ্নের সম্মুখীন হন।

যারা bdtax.com.bd ওয়েবসাইটে নিবন্ধিত হয়ে আয়কর বিবরণী পূরণ করেন তারা খুব সহজেই এই ফরম পূরণ করতে পারেন।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ছাপানো ফর্মের যে তথ্যগুলো চাওয়া হয়েছে তা এখানে আলাদাভাবে দেওয়া আছে।

যেমন, কৃষি জমি, অ-কৃষি জমি, বিনিয়োগ ইত্যাদি। আপনার যদি এই সম্পদগুলো থাকে তাহলে নির্দিষ্ট বক্সে ক্লিক করে পূরণ করবেন। একে একে পূরণ হয়ে গেলে শেষ দিকে বাকি থাকবে নগদ (Cash Assets), অন্যান্য সম্পত্তি (Other Assets) এবং অন্যান্য সম্পত্তিপ্রাপ্তি  (Other Assets Receipt)।

আপনার হাতে বছর শেষে নগদ যতো আছে তা আপনি এই ঘরে লিখবেন। প্রতিটি ঘরে আপনার সমস্ত সম্পদ দেয়া হয়ে গেলে যা বাকি থাকবে তা লিখবেন অন্যান্য সম্পত্তি ঘরে। আর যদি আপনি কোন সম্পত্তি কারো কাছ থেকে গ্রহণ করেন এবং উপযুক্ত খাত না পান তাহলে Other Assets Receipt বক্সে লিখতে পারেন।

বেশি প্রশ্ন এসে থাকে গিফট সম্পর্কিত। আত্নীয়-স্বজনদের কাছ থেকে গিফট পেয়েছেন। এটা সোনা বা টাকা যেভাবেই হোক পেতে পারেন। এখন এগুলো কথায় কিভাবে দেখাবেন? এই ধরনের প্রশ্ন প্রায়ই শোনা যায়।

আপনি যদি আপনার নিকটজনদের কাছ থেকে নগদ টাকা গিফট হিসেবে পেয়ে থাকেন তাহলে তা নগদ সম্পত্তি বক্সে দেখাবেন। আর যদি সোনা গিফট হিসেবে পান তাহলে জুয়েলারি বক্সে দেখাবেন। সেখানে আপনি কার কাছ থেকে কতটুকু পেয়েছেন তা উল্লেখ করবেন।

আবার আপনি পৈতৃক সূত্রে কৃষি বা অ-কৃষি জমি পেতে পারেন। তা আপনি যথাস্থানেই বসাতে পারেন। আবার এই সম্পত্তি আপনি আপনার দরকারে বিক্রিও করতে পারেন। সেক্ষেত্রে একদিকে আপনার জমির পরিমান কমবে এবং বিপরীত দিকে আপনার নগদ টাকার পরিমান বাড়বে। অতএব, এক্ষেত্রে আপনার দুই জায়গাতেই তথ্য বসাতে হবে।

এতোক্ষণ আমরা সম্পত্তি পাশে যেগুলো দেখাতে হবে তা জানলাম। তাহলে দায় পাশে কি দেখাতে হবে? যেমন, কেউ কেউ হয়তো ব্যাংক থেকে লোন নিয়েছেন। সেক্ষেত্রে এই লোন আপনি দায় পাশে দেখাবেন। কতো লোন নিয়েছেন তার বিবরণসহ উল্লেখ করতে হবে। টাকা বহির্গমন হলে তা ব্যয় পাশে দেখাতে হবে। যেমন, আপনি যদি কাউকে গিফট দেন তাহলে বিবরণীতে নামসস উল্লেখ করতে হবে কতো টাকা দিয়েছেন। বা সোনা দিয়ে থাকলেও বিস্তারিত উল্লেখ করতে হবে।

জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সবার জন্য সুবিধা হয় বিবেচনা করে সার্বজনীন ব্যবহারের জন্য আয়কর বিবরণী ফরম তৈরি করেছে যাতে করে সবাই তাদের তথ্য দিতে পারেন। তবে খাত অনুযায়ী আপনি তথ্য দিয়ে দরকার হলে আলাদা কাগজ সংযুক্ত করেও বাড়তি তথ্য দিতে পারেন।

করদাতা ভেদে একেক জনের তথ্য একেক রকম। এক জনের সাথে আরেক জনের সমস্যার মিল নেই।সুতরাং ভিন্ন ভিন্ন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়।

তাই সবচেয়ে ভালো হয় আয়কর বিবরণী যখন পূরণ করবেন তখন যদি কোন জটিল লেনদেন থাকে তাহলে অভিজ্ঞ কারো কাছ থেকে সাহায্য বা পরামর্শ নেয়া। তাহলে আর কোন চিন্তা থাকবে না।

বছর শেষ হয়ে গেছে। আপনি ইতোমধ্যেই জেনে গেছেন আপনার আয়, ব্যয় ও সম্পদের পরিমান। এখন থেকেই আপনি প্রস্তুতি নিতে পারেন। তাহলে শেষ দিকে গিয়ে কোন তাড়াহুড়া করতে হবে না।

জসীম উদ্দিন রাসেল
FACEBOOK 

 

By | 2018-07-03T08:26:40+00:00 July 1st, 2018|Tax Filing|2 Comments

About the Author:

2 Comments

  1. মিজানুর রহমান July 5, 2018 at 4:20 pm - Reply

    আমি 2018-2019 অথ বৎসরের আয়কর
    জমা করতে চাই। কবে থেকে আপনাদের অন লাইন সিস্টেম চালু হবে। আমার জরুরী রিটান জমা করা প্রয়োজন।

    • bdtaxblog September 11, 2018 at 6:29 am - Reply

      আমাদের সিস্টেমে একাউন্ট খুলে এখনই আপনি রিটার্ন প্রস্তুত করতে পাড়বেন।
      একাঊণ্ট খুলতে এই লিংকে যান।
      https://www.bdtax.com.bd/index.php/user/registration/registerIndividual
      ধন্যবাদ।

Leave A Comment

*

Shares