আপনার স্বামী / স্ত্রী কর্মজীবী হলে তার আয় রিটার্নে কোথায় দেখাবেন?

//আপনার স্বামী / স্ত্রী কর্মজীবী হলে তার আয় রিটার্নে কোথায় দেখাবেন?

আপনার স্বামী / স্ত্রী কর্মজীবী হলে তার আয় রিটার্নে কোথায় দেখাবেন?

নভেম্বর ১৪ তারিখ থেকে শুরু হতে যাচ্ছে আয়কর মেলা। চলবে ২০ তারিখ পর্যন্ত। যারা নিয়মিত আয়কর রিটার্ন দেন তারা জানেন রিটার্ন দেওয়ার শেষ তারিখ  ৩০  নভেম্বর। গত কয়েক বছর ধরে রিটার্ন জমা দেওয়ার সময় আর বৃদ্ধি করা হয়না।  তাই আপনার হাতে এখন আর সময় নেই। আপনাকে এখনই রিটার্ন তৈরি করে মেলায় বা এইমাসের মধ্যে জমা দিতে হবে।

আমরা সাধারনত নিজের রিটার্ন নিজেই তৈরি করে রিটার্ন মেলায় জমা দিয়ে থাকি। আপনি যদি পরিবারে একাই উপার্জন করে থাকেন তাহলে আপনার রিটার্নে শুধু আপনার আয় এবং ব্যয় দেখাতে হয়। কিন্তু যদি আপনার স্ত্রী ও আয় করেন তাহলে তার আয় কোথায় দেখাবেন?

প্রথম কথা হলো, আমরা সবাই জানি কোন ব্যক্তির যদি করযোগ্য আয় থাকে তাহলে তাকে নিয়ম অনুযায়ী রিটার্ন দাখিল করতে হবে। তার আলাদা টিন থাকবে। মহিলা করদাতাদের ক্ষেত্রে করযোগ্য আয় তিন লাখ টাকা।

বছর শেষে আপনি যদি দেখেন আপনার স্বামী/স্ত্রীর আয় এই সীমার উপরে আছে তাহলে তিনি আলাদাভাবে রিটার্ন দাখিল করবেন।

কিন্তু যদি তার করযোগ্য আয় তিন লাখ টাকার নিচে হয় তাহলে তার আয় আপনার রিটার্নের সাথে দেখাতে হবে। অর্থাৎ আপনার স্বামী/ স্ত্রীর আয় আপনার আয়ের সাথে যোগ হবে। 

যেমন, আপনার স্বামী/স্ত্রীর যদি সঞ্চয়পত্র কেনা থাকে তাহলে মাসিক ভিত্তিতে হোক বা বাৎসরিক ভিত্তিতে হোক তিনি সুদ পেয়ে থাকেন।  আবার তার এফডিআর থাকতে পারে যেখান থেকেও সুদ হিসেবে আয় থাকতে পারে। এসব আয় আপনার আয়ের সাথে যোগ হয়ে আপনার মোট করযোগ্য আয় বের করতে হবে। তাহলে দেখা যাচ্ছে,স্বামী/স্ত্রীর আয়ের জন্য আপনার করযোগ্য আয়ের পরিমান বেড়ে যাচ্ছে এবং আপনাকে এর জন্য কর বেশি দিতে হচ্ছে।

এখন আপনার মনে প্রশ্ন জাগতে পারে, আপনার স্বামী/স্ত্রীর আয় আপনি রিটার্নের কোথায় দেখাবেন?

আপনি যখন রিটার্ন ফর্মে একে একে আপনার বিভিন্ন খাত থেকে আয়ের পরিমান লিখবেন তখন নিচের দিকে লক্ষ্য করবেন “অপ্রাপ্তবয়স্ক সন্তান, স্ত্রী বা স্বামীর আয়” নামে একটি খাত আছে, আপনি সেখানে আপনার স্বামী/স্ত্রীর আয়ের পরিমান লিখবেন। এবং বাকি সব আগের মতোই হবে যেভাবে আপনি রিটার্ন পূরণ করে থাকেন।

আপনার নিজের কাছে করযোগ্য আয় বের করা এবং সেখান থেকে আরকর বের করা জটিল মনে হলে bdtax.com.bd– এর সাহায্য নিতে পারেন। এই সফটওয়্যার ব্যবহার করে আপনি আপনার আয়, ব্যয় ও অন্যান্য তথ্য গুলো নির্দিষ্ট ঘরে বসালেই আপনার আয়কর সয়ংক্রিয়ভাবে বেরিয়ে আসবে।

আর এভাবেই অল্প সময়ে এবং সহজেই আপনি ঘরে বসে তৈরি করে নিতে পারেন আপনার নিজের আয়কর রিটার্ন। তাই দেরি না করে আজই লগইন করুন।

জসীম উদ্দিন রাসেল  

By | 2019-11-19T09:40:04+00:00 November 18th, 2019|Tax Filing|0 Comments

About the Author:

Leave A Comment

*

Shares
error: Content is protected !!