বাজেট ২০২২-২৩: কর রেয়াতে যে সকল পরিবর্তন আসবে

/, Tax Filing, Tax Rebate, Tax return/বাজেট ২০২২-২৩: কর রেয়াতে যে সকল পরিবর্তন আসবে

বাজেট ২০২২-২৩: কর রেয়াতে যে সকল পরিবর্তন আসবে

প্রতি বছর বাজেটের পর আয়কর গণনায় কিছু পরিবর্তন আসে। এবার ২০২২-২৩ বাজেটে যে পরিবর্তনগুলো প্রস্তাব করা হয়েছে তার মধ্যে ব্যক্তি করদাতার আয়কর গণনায় উল্লেখযোগ্য একটি পরিবর্তন আসবে কর রেয়াত গণনায়।

আপনি জানেন কর রেয়াত একজন ব্যক্তি করদাতার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারন, ব্যক্তি করদাতার করদায় অনেকাংশে হ্রাস করে কর রেয়াত। আগে কর রেয়াত গণনার হার ছিলো দুইটি, ১৫% এবং ১০%

যদি কোন করদাতার করযোগ্য আয় ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত হয় তাহলে তিনি তার বিনিয়োগ ভাতার উপর ১৫% হিসেবে কর রেয়াত দাবি করতে পারতেন। আর যদি কোন করদাতার করযোগ্য আয় ১৫ লাখ টাকার বেশি হয় তাহলে তিনি তার বিনিয়োগ ভাতার উপর ১০% কর রেয়াত দাবি করতে পারতেন।

কিন্তু এবারের বাজেটে এই কর রেয়াত হার দুইটি থেকে একটি হার প্রস্তাব করা হয়েছে। এখন করযোগ্য আয় যাই থাকুক না কেন সকল করদাতাই তার বিনিয়োগ ভাতার উপর ১৫% হিসেবে কর রেয়াত নির্ণয় করতে পারবেন। এর ফলে আপনি আগের তুলনায় খুব সহজে এবং দ্রুত সময়ের মধ্যে কর রেয়াত গণনা করতে পারবেন।

কিন্তু আমরা যে কর রেয়াতের কথা বলছি তা পাওয়া যায় বিনিয়োগ ভাতার উপর। আয়কর আইন অনুযায়ী বিনিয়োগ ভাতা কতো পাবেন তা উল্লেখ রয়েছে। গত বছর পর্যন্ত একজন করদাতার করযোগ্য আয়ের ২৫% পর্যন্ত বিনিয়োগ ভাতা দাবি করতে পারতেন। এবার বাজেটে তা কমিয়ে ২০% এ প্রস্তাব করা হয়েছে। এর ফলে আপনি বিনিয়োগ ভাতা আগের তুলনায় ৫% কম দাবি করতে পারবেন। এবং আপনার কর রেয়াতের পরিমান কমবে। অর্থাৎ, করদায় বাড়বে।

একজন করদাতা বিনিয়োগ ভাতা যখন বের করেন তখন তিনি মোট তিনটি অংক বের করেন। প্রথম অংক হলো, করযোগ্য আয়ের ২০% (প্রস্তাবিত বাজেট অনুযায়ী), দ্বিতীয় অংক হলো, করদাতার প্রকৃত বিনিয়োগকৃত টাকা এবং তৃতীয় অংক হলো, সর্বোচ্চ এক কোটি টাকা।

উপরের তিনটি অংকের মধ্যে যেই অংকটি ছোট হবে তাই হবে আপনার বিনিয়োগ ভাতা। এখন আপনি আপনার করযোগ্য আয়ের ২০% বিনিয়োগ ভাতা হিসেবে দেখাতে পারবেন। কিন্তু যদি বিনিয়োগই না করেন তাহলে কোন কর রেয়াত দাবি করা যাবে না।

এজন্য আপনাকে বিনিয়োগ করতে হবে। আমাদের সবারই প্রশ্ন থাকে এই বিনিয়োগ কোথায় করা যাবে। আয়কর আইনে কিছু নির্দিষ্ট খাত রয়েছে যে খাতগুলোতে বিনিয়োগ করলে একজন করদাতা বিনিয়োগ ভাতা হিসেবে দেখাতে পারেন এবং তার উপর কর রেয়াত দাবী করতে পারেন।

এই ব্লগে কোথায় বিনিয়োগ করা যাবে তার উপর একটি লেখা আছে। আপনি এই লেখাটি পড়ে নিতে পারেন। এবং চেষ্ঠা করুন সারা বছর ধরেই বিনিয়োগ করতে তাহলে একসাথে আর চাপ পড়বে না।

উপরে কর রেয়াত এবং বিনিয়োগ ভাতা সম্পর্কে আপনি অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় এতোক্ষণ ধরে জানলেন। যদি আপনার কাছে জটিল মনে হয় কর গণনা করতে গিয়ে তাহলে আপনি জেনে আনন্দিত হবেন যে, বিডিট্যাক্স তাদের নিজস্ব সফটওয়ারের মাধ্যমে খুবই অল্প সময়ের মধ্যে একজন ব্যক্তি করদাতার কর গণনায় সহায়তা দিয়ে থাকে। আপনি যদি এখনও রেজিস্ট্রেশন করে না থাকেন তাহলে এখনি রেজিস্ট্রেশন করে নিন।

বিডিট্যাক্স আয়কর রিটার্ন তৈরির পাশাপাশি আয়কর বিষয়ক পরামর্শও দিয়ে থাকে। আপনি যদি কোন জটিলতায় পড়েন এবং তার জন্য কোন পরামর্শ নিতে চান তাহলে ট্যাক্স কনসালট্যান্টের কাছ থেকে এই সুবিধাও নিতে পারবেন।

প্রতি বছরই BDTax ব্যক্তি করদাতাদের সেবা দেওয়ার জন্য নতুন নতুন সুবিধা নিয়ে আসে। আপনিও এই সেবাগুলো পেতে এখনই রেজিস্ট্রেশন করতে পারেন।

লেখক

জসীম উদ্দিন রাসেল।

By | 2022-06-22T15:09:45+00:00 June 20th, 2022|Budget 22-23, Tax Filing, Tax Rebate, Tax return|2 Comments

About the Author:

2 Comments

  1. Hossain Md.mosharof June 28, 2022 at 4:45 pm - Reply

    Thanks

Leave A Comment

*

Shares
error: Content is protected !!