নতুন বিয়ে, নতুন বাড়ি এবং বাচ্চার কারনে আয়কর রিটার্নে যেসব পরিবর্তন আসতে পারে।

//নতুন বিয়ে, নতুন বাড়ি এবং বাচ্চার কারনে আয়কর রিটার্নে যেসব পরিবর্তন আসতে পারে।

নতুন বিয়ে, নতুন বাড়ি এবং বাচ্চার কারনে আয়কর রিটার্নে যেসব পরিবর্তন আসতে পারে।

যারা নতুন বিয়ে করেছেন বা বাড়ি কিনেছেন/তৈরি করেছেন বা সন্তানের বাবা-মা হয়েছেন তাদের জন্য শুভ কামনা। আশা করছি এ বছর আপনার মন ভালো থাকবে। আপনার সামনের দিনগুলো ভালো কাটুক এই কামনা করছি।

উপরে উল্লেখিত যে কোন কারনেই আপনার আয়কর রিটার্নে পরিবর্তন আসতে পারে। আপনার আয় যেমন বাড়তে পারে তেমনি আবার খরচও বাড়তে পারে। আবার কিছু ক্ষেত্রে আয় না বেড়ে শুধু খরচই বাড়তে পারে। মূলত উপরের পরিবর্তনগুলোর কারনে আপনার লাইফস্টাইলে পরিবর্তন আসতে পারে যা আপানার জীবনযাত্রা সংশ্লিষ্ট ব্যয়ের বিবরণীতে দেখাতে হবে।

নতুন বিয়ের ক্ষেত্রে আয়করে কি পরিবর্তন আসতে পারে?

প্রথমেই আসি আয়ের কথায়। আপনার পার্টনার যদি আগে থেকেই করদাতা হন তাহলে তিনি আগের মতোই আলাদা রিটার্ন দাখিল করবেন। শুধু সাধারন পার্টে দুই জনের রিটার্নেই অবিবাহিতর জায়গায় এখন বিবাহিত সিলেক্ট করবেন।

আর যদি পার্টনার এর আলাদা টিন না থাকেন তাহলে তার যদি কোন আয় থেকে থাকে সেসব আয় আপনার রিটার্নে দেখাতে হবে এবং এর কারনে আপনার আয়করের পরিমান এ বছর বেড়ে যেতে পারে।

বিয়ে করার সময় আপনার যে বড় অংকের খরচ হয়েছে তা আপনি দুইটি বিবরণীতে দেখাবেন। এর মধ্যে জীবনযাত্রা সংশ্লিষ্ট ব্যয়ের বিবরণীতে আপনার খরচগুলো দেখিয়ে বাকি যে সোনা, মূল্যবান উপহারসহ অন্যান্য সম্পত্তি পেয়েছেন তা পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণীতে দেখাবে।

এখন এই খরচগুলো করতে গিয়ে যদি কোন লোন করে থাকেন তাহলে সেই লোনের পরিমানও পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণীতে উল্লেখ করতে হবে।

নতুন বাড়ির মালিক হলে আয়করের ক্ষেত্রে কি পরিবর্তন আসবে?

আপনি বিভিন্নভাবেই নতুন বাড়ি বা ফ্ল্যাটের মালিক হতে পারেন। নিজে কিনতে পারেন বা উত্তরাধিকারসূত্রে পেতে পারেন। আবার কেউ কেউ শশুড় বাড়ি থেকে গিফটও পেয়ে থাকেন।

আপনি যেভাবেই বাড়ি বা ফ্ল্যাটের মালিক হোন না কেন তা আপনার সম্পদ। তাই আপনাকে এই বাড়ি বা ফ্ল্যাট আপনার পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণীতে দেখাতে হবে। এর ফলে আপনার এ বছর নীট সম্পদের পরিমান এক লাফে অনেক বেড়ে যেতে পারে।

আপনি যদি বাড়ি বা ফ্ল্যাট নিজ টাকায় কিনে থাকেন তাহলে হয়তো ব্যাংক থেকে দীর্ঘ মেয়াদি লোন নিয়েছেন। সেই লোনও পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণীতে দায় এ দেখাতে হবে। এর ফলে একদিকে যেমন আপনার সম্পদের পরিমান বাড়বে তেমনি আরেক দিকে দায়ের কারনে আপনার নীট সম্পদের পরিমান কমবে।

এখন বাড়ি বা ফ্ল্যাটে আপনি নিজে না থেকে যদি ভাড়া দিয়ে দেন তাহলে বাড়ি ভাড়া থেকে আপনার যে আয় আসবে তা থেকে খরচ বাদ দিয়ে আপনাকে আয়কর দিতে হবে। এর ফলে আপনার আয়করের পরিমান বাড়বে।

নতুন সন্তানের ক্ষেত্রে আয়করে কি প্রভাব পরবে? 

মানুষ জীবনে সবচেয়ে বেশি খুশি হয় যেদিন সে বাবা-মা হয়। সবাই তাদের অনুভূতিতে বলেন, বাবা-মা হওয়ার কি যে আনন্দ এটা অন্যকে বুঝিয়ে বলা যাবে না।

এই আনন্দের পাশাপাশি খরচের পরিমানটা বেড়ে যায় যদিও তা আনন্দের তুলনায় নগণ্য। কিন্তু যারা আয়কর রিটার্ন দাখিল করেন তাদের এই খরচ জীবযাত্রা সংশ্লিষ্ট বিবরণীতে দেখাতে হয়। এর ফলে এখন আপনার প্রতি মাসের খরচ বাড়তে থাকবে এবং বছর বছর আপনার জীবনযাত্রা সংশ্লিষ্ট বিবরণীতে এর প্রভাব পড়বে।

নতুন সন্তানকে আত্নীয়-স্বজন দেখতে এসে উপহার দিয়ে থাকেন। সোনাসহ অন্যান্য যতো মূল্যবান উপহার আপনার সন্তান পাবে তা আপনাকে দেখাতে হবে পরিসম্পদ, দায় ও ব্যয় বিবরণীতে।

উপরে উল্লেখিত উদাহরণ মাত্র কয়েকটি। এর বাইরে ভিন্ন ভিন্ন অসংখ্য কারন বের হতে পারে যা আলাদা আলাদা ভাবে আয়কর রিটার্নে প্রভাব ফেলবে। রিটার্ন তৈরির সময় যদি  কোনকিছু জটিল মনে হয় তাহলে অভিজ্ঞ কারো পরামর্শ নিতে পারেন।

আর অনলাইনে রিটার্ন দাখিল করার জন্য এবং নিজেই নিজের রিটার্ন তৈরি করার জন্য লগ ইন করুন bdtax.com.bd ওয়েবসাইটে। আর bdtax.com.bd এর Live Chat এ জিজ্ঞেস করলেই পেয়ে যাবেন আপনার যে কোন প্রয়োজনীয় তথ্য ও পরামর্শ।

সুতরাং শেষসময়ে তাড়াহুড়ো না করে আগে আগেই তৈরি করে ফেলুন আপনার আয়কর রিটার্ন।    

জসীম উদ্দিন রাসেল

By | 2019-08-22T11:00:38+00:00 August 21st, 2019|Tax Filing|2 Comments

About the Author:

2 Comments

  1. Bakhtear Mahmud August 29, 2019 at 4:56 am - Reply

    ১। উত্তরাধিকার সূত্রে কোন ফ্লাট বা অর্থ গিফট পেলে তার উপস্থাপনটি কীভাবে হবে?

    • bdtaxsupport September 1, 2019 at 5:08 am - Reply

      উত্তরাধিকারী সূত্রে কোনো ফ্লাট অথবা জমি পেলে অথবা নগদ অর্থ পেলে আপনি আমাদের সিস্টেম এর আদার অ্যাসেট রেসিপেন্ট এর ঘরে দেখাবেন সম্পদ হিসেবে।

Leave A Comment

*

Shares
error: Content is protected !!